করোনাঃ যেসব কারণে ইন্ডিয়া আমেরিকাকে পেছনে ফেলবে

New Popular 

 News / Posted 4 weeks ago by admin / 238 views

আজ ৭ জুন ২০২০ তারিখে ইউএসএ তে করোনায় আক্রন্তের সংখ্যা ২০ লাখের কাছাকাছি (১৯,৯৫,৯৪৫), কিন্তু ইন্ডিয়ায় তা মাত্র ২.৫০ লাখ প্রায় (২,৫৫,২৮১)। ইউএসএ তে মোট মৃত্যু ১ লাখ পেরুলেও (১,১২,১৮৮) ইন্ডিয়ায় তা  এখনও ১০ হাজার ছুঁতে পারেনি (৭,১২৩)। এসব দেখে বিশ্ববাসী ইউএসএ’র জন্য চরম হতবম্ব হলেও আরও চরম দুর্ভাগ্য হয়ত অপেক্ষা করছে ইন্ডিয়ার জন্য। এ ব্যাপারে বিশ্ব -নেতাদের এখনই মনোযোগ দেয়া উচিৎ। ইউএসএ এবং ইন্ডিয়ার অবস্থার মধ্যে এমন আকাশ-পাতাল ব্যাবধান থাকলেও খুব শিঘ্রই ইন্ডিয়া ইতোপুর্বের সকল হিসাব-নিকাশকে উলটপালট করে করোনা আক্রান্তে এমনকি ক্ষয়ক্ষতিতেও ইউএসএ তথা সকল দেশকে ছাড়িয়ে এক মহা দুর্যোগ বয়ে আনতে পারে। যেসব কারনে ইন্ডিয়া আমেরিকাকে পেছনে ফেলবে তা নিম্নে তুলে ধরবার চেষ্টা করিঃ

১) ইউএসএ মুলতঃ উন্নত দেশসমুহের মধ্যে উন্নততর একটি দেশ। অন্যদিকে ইন্ডিয়া দরিদ্র দেশসমুহের মধ্যে দরিদ্রতর ভাগে বিদ্যমান দেশ। কাজেই অর্থনৈতিকভাবে ইন্ডিয়া ইউএসএ’র তুলনায় অত্যন্ত দুর্বল করোনার বিরুদ্ধে।

২) উন্নত দেশ সমুহের সাস্থ্যখাতে গড় ব্যয় তাদের জিডিপি’র ১২.৫৩% । আমেরিকা এই ক্ষেত্রে ব্যয় করে ১৭.০৬%। অন্যদিকে দরিদ্রতম দেশ সমুহ গড়ে এই খাতে ব্যয় করে  ৩.৮৬% যেখানে ইন্ডিয়া করে মাত্র ৩.৫৩%।

৩) ইউএসএ, তাদের ৩৩ কোটি মানুষের সাস্থের জন্য প্রতি বছর ব্যয় করে ৩.৬ ট্রিলিয়ন ডলার, আর ইন্ডিয়া তার ১৩৮ কোটি মানুষের সাস্থের জন্য ব্যয় করে বছরে ২.৬ ট্রিলিয়ন ডলার।

৪) ইউএসএ তাদের  প্রতিটি মানুষের সাস্থের জন্য বছরে ব্যয় করে ১১,১৭২ ডলার, আর ইন্ডিয়া তার প্রতিটি মানুষের সাস্থের জন্য ব্যয় করে মাত্র ৪৪ ডলার।

৫) ইউএসএ তে প্রতি বর্গ কিলমিটারে বাস করে মাত্র ৩৬ জন মানুষ, আর ইন্ডিয়াতে তা ৪৬৪ জন। কাজেই ঘন বসতি ইন্ডিয়ার অনেক এলাকার জন্য বিপদের কারণ হতে পারে।

৬) ইউএসএ তে প্রতি ৩৩৯ জন মানুষের জন্য ১ জন ডাক্তার রয়েছেন যেখানে  ইন্ডিয়ায় প্রতি ১৪৫৬ জনের জন্য ডাক্তার আছেন মাত্র ১ জন।

৭) সর্বোপরি, ইন্ডিয়ার জনসংখ্যা এত বেশি যে, ইউএসএ’র সব মানুষও যদি করোনায় আক্রান্ত হয়, আর ইন্ডিয়া তার ১৩৮ কোটি মানুষের মধ্যে ১০০ কোটি মানুষকেও যদি করোনার হাত থেকে বাচাতে পারে, তবুও ইন্ডিয়া আক্রন্তের সংখ্যায় ইউএসএ কে ছাড়িয়ে যাবে। অর্থাৎ আমেরিকার সব মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েও করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় ইন্ডিয়াকে পেছনে ফেলতে পারবে না।

এসব গেল সংখ্যার হিসাব। কিন্তু ইন্ডিয়াসহ আমাদের দক্ষিণ এশিয়ার দেশ সমুহের সাস্থ্য ব্যবস্থায় যে নাজুক অবস্থা বিদ্যমান, তাতে করোনার মতো মহামারি ঠেকাতে আঞ্চলিক পর্যায়ে ঐক্যের কোনও বিকল্প তো নেই-ই এমনকি বিশ্বকে করোনামুক্ত করতে গেলেও গোটা বিশ্বকে একসাথে কাজ করতে হবে। বিশ্ব নেতৃবৃন্দ যত তাড়াতাড়ি এটা অনুধাবন করবে ততোই কম ক্ষয়-ক্ষতির বিনিময়য়ে আমরা করনাকে মকাবিলা করতে পারব। নচেৎ মুল্য দিতে হবে  অ—নেক বেশি। মনে রাখবেন অভ্র তে সঠিক বানানে লেখা কঠিন, অনেক ক্ষেত্রে অসম্ভব। মাফ করবেন। ঘরে থাকবেন, সুস্থ থাকবেন।

-এডমিন, finderbd.com

 

 

Contact details

Contact this listing owner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

finderbd.com

খুঁজে দেখুন আপনার চারিপাশ

0